1. pragrasree.sraman@gmail.com : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী
  2. avijitcse12@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক :
শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১০:১৮ অপরাহ্ন

সুজাতা কেন বুদ্ধকে পায়েস খাইয়েছিলেন !

মনোরঞ্জন রাউল
  • সময় মঙ্গলবার, ৩০ মার্চ, ২০২১
  • ১৯৮ পঠিত

বুদ্ধ তখন বুদ্ধত্ব লাভ করেননি  ; তিনি তপস্যা করে সিদ্ধিলাভ করতে চাইছেন । তখন তিনি সত্যজ্ঞান লাভের জন্য কঠোর তপস্যায় মগ্ন । দিনের পর দিন মাসের পর মাস কঠোর তপস্যায় , অনিদ্রায় , অনাহারে তাঁর শরীর শীর্ণ শুষ্ক হয়ে গেছে । এই সময় একদিন তিনি নদীতে স্নান করতে গেলেন । স্নান সেরে ফিরে আসার সময় তিনি শারীরিক দুর্বলতার জন্য মুছিত হয়ে পড়লেন । এমন সময় তিনি দেখতে পেলেন । এক দেবপুরুষ সেতার বাজাচ্ছেন । তাঁর সেতারের তিনটি তার , প্রথম তারটি খুব শক্ত আর খুব টান করে বাঁধা । তৃতীয় তারটি খুব আলতো করে কোনো মতে দুপ্রান্ত বাঁধা আছে , এতে কোনো রকম টান নেই , ঝুলে পড়ে আছে । আর মাঝের তারটি না খুব টান করে বাঁধা , না খুব আলতো করে সুন্দরভাবে সুর দিয়ে বাঁধা । যে দেবপুরুষ সেই সেতার বাজাচ্ছেন । তিনি শুধু মাঝের তারটিতেই মধুর সুর তুলছেন ।

বুদ্ধ উঠে দাঁড়ালেন , বললেন – বুঝেছি এটাই জীবনের সত্য । আমাদের জীবন সেতারের তারের মতো । কঠোর তপস্যা করেও নয় , চরম ভোগ বিলাসে জবন এলিয়ে দিয়েও নয় , মাঝের পথ বা মধ্যপথ ( মঝঝিম পন্থা ) হল আসল পথ , সত্য লাভের উপায় । তখনি তিনি স্থির করলেন আর চরম কৃচ্ছ ধন নয় , পরিমিত আহার করে তপস্যা করতে হবে । কঙ্কালসার দেহ নিয়ে কিছু কাজ হবে না ।

এসব ভাবতে ভাবতে এক বট গাছের তলায় এসে বসে আছেন , সেই সময় সুজাতা এসেছেন বন দেবতার পূজা দেওয়ার জন্য । পুজোর জন্য তিনি যে পায়েস এনেছিলেন তা তিনি সন্ন্যাসীকে নিবেদন করলেন । সন্ন্যাসী গৌতম সুজাতার দেওয়া সেই পায়েস গ্রহণ করলেন । পায়েস খেয়ে তিনি শরীরে বল পেলেন । তারপর তিনি সেখান থেকে উঠে গিয়ে এক অশ্বথ গাছের তলায় তপস্যা করে সিদ্ধি লাভ করলেন — তিনি বোধি লাভ করে বুদ্ধ হলেন ।

এখন প্রশ্ন হল , সুজাতা কে ছিলেন ? কেনই বা তিনি বুদ্ধকে পায়েস খাইয়েছিলেন ? ঘটনা হল –

নৈরঞ্জনা নদীর তীরে বন আর বনের এক প্রান্তে সেনানী নামে একটি গ্রাম । সেই গ্রামে নন্দিক নামে এক ধনী বণিক ছিলেন , সুজাতা ছিলেন তাঁর স্ত্রী । তাদের কোনো সন্তান ছিল না , তাই তারা ওই বনের বট গাছের তলায় বন – দেবতার কাছে মানত করেছিলেন যে , এঁদের সন্তান হলে তারা দেবতার পুজো দেবেন । তাদের সন্তান হয়েছিল , তাই সুজাতা সেই আনন্দে পূর্ণা নামে এক দাসীকে সঙ্গে নিয়ে দেবতার পুজো দিতে গিয়েছিলেন । আর পুজোর জন্য অন্য উপাচারের সঙ্গে পায়েস নিয়ে গিয়েছিলেন ।

দেবতার স্থানে গিয়ে সুজাতা দেখলেন যে বট গাছের তলায় দেবতার পুজো হয় , সেই গাছের তলায় এক সন্ন্যাসী বসে আছেন । সুজাতার মলে হল ইনি হয়তো সেই দেবতা , সন্ন্যাসীর রূপ ধরে বসে আছেন । সুজাতা পুজোর সেই পায়েস ভক্তি সহকারে সন্ন্যাসীকে নিবেদন করলেন । সন্ন্যাসী সেহ পায়েস গ্রহণ করলেন । আসলে এই পায়েস গ্রহণ তার সাধন পথের পরিবর্তনের সূচক , কঠোর কৃচ্ছ সাধনের পরিবর্তে মধ্যপথ গ্রহণের ইঙ্গিত । এই পায়েস মুছে দিল তার দীর্ঘ ছয় বছরের নিস্ফল কঠোর তপস্যা ।

পায়েস খেয়ে তিনি শরীরে বল পেলেন । সেখান থেকে উঠে তিনি নৈরনা নদীর তীর ধরে এগিয়ে চললেন । চলতে চলতে সন্ধ্যা নেমে এল । বৈশাখী পূর্ণিমার শুভ্র আলোকে তিনি এক অশ্বত্থ গাছের তলায় গিয়ে বসলেন । এখানেই তিনি রাতের তৃতীয় প্রহরে বুদ্ধত্ব লাভ তিনি ঋষি গৌতম থেকে হলেন  বুদ্ধ ।

শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো
© All rights reserved © 2019 bibartanonline.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarbibart251
error: Content is protected !!