1. pragrasree.sraman@gmail.com : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী
  2. avijitcse12@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক :
শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ১১:৫৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম
চট্রগ্রামে ধাতু প্রদর্শনীসহ সংঘদান ও জ্ঞাতিভোজ ১০ মার্চ রেণুপ্রভা-প্রিয়রঞ্জন ফাউন্ডেশনের’র সংঘদান ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠান কর্মজ্যোতি জিনানন্দ মহাথের’র জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান পরলোকে সবিতা রানী বড়ুয়া কর্মজ্যোতি জিনানন্দ মহাথের’র অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া শুরু মুন্সিগঞ্জে ১১শ বছরের পুরোনো বৌদ্ধ কুঠুরি আবিষ্কার রামুর ভুবন শান্তি ১০০ ফুট দীর্ঘ সিংহ শয্যা গৌতম বুদ্ধমূর্তি পরিদর্শনে মার্কিন রাষ্ট্রদূত মহাসংঘনায়ক বিশুদ্ধানন্দ মহাথেরো’র ২৭তম মহাপ্রয়াণ দিবস ভারতে একই মঠে ১০০ বৌদ্ধ ভিক্ষু করোনায় সংক্রমিত! ধর্মীয় শিক্ষা পাহাড়ে খুনোখুনি থামাতে পারে: দীপংকর তালুকদার

সংঘবন্ধু অজিতানন্দ মহাথেরোর পরলোকগমন

প্রতিবেদক
  • সময় বৃহস্পতিবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৮
  • ৫৫৪ পঠিত

বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার সভাপতি শ্রীমৎ অজিতানন্দ মহাথের (৮২) প্রয়াণ করেছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৮.৪০ মিনিটে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। (অনিচ্চা বথ সাংখারা…) তিনি জটিল ক্যান্সার রোগে ভুগছিলেন।

আজ বিকাল ৩টা চট্টগ্রামস্থ চাঁন্দগাও সার্বজনীন শাক্যমুনি বিহারে বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার আয়োজনে প্রথম শোকসভা শেষে রাঙ্গুনিয়া ইছাখালী অশোকারাম বিহারে ভন্তের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানা গেছে।

মৃত্যুকালে তিনি ভিক্ষু জীবনে শিষ্য-প্রশিষ্য এবং গৃহী জীবনের অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে যান ।

উল্লে,  সংঘবন্ধু অজিতানন্দ মহাস্থবির শেষ নি:শ্বাস ত্যাগের অপেক্ষায় চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল আইসিইউতে নিবিড় পরিচর্যায় ছিলেন। প্রায় দেড়মাস থাইল্যান্ড চিকিৎসার পর গত ২০ আগষ্ট থাই বিমানে ঢাকা হয়ে চট্রগ্রাম আসেন।

জানা যায়, প্রয়াত অজিতানন্দ মহাথের গৃহী জীবনে রাংগুনীয়া সোনারগাও গ্রামের মৃত কামিনী বড়ুয়া ও মৃত প্রফুল্ল বড়ুয়া সন্তান। উনারা ৪ ভাই ৩ বোন।
পূজনীয় ভন্তে জীবনের সূচনালগ্নে পোমরা জ্ঞানান্ধুর মৈত্রী বিহারে ১৯৬৯ থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত অবস্থান করেছিলেন।সেখান থেকে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম,এ পাশ করেন ও পাশাপাশি শিক্ষকতা পেশাকে ব্রত হিসাবে গ্রহণ করেন।প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি সম্পাদকের দায়িত্বে থেকে শিক্ষকদের অধিকার আন্দোলনেও কাজ করেন।
স্বাধীন দৃঢ়চেতা সমাজ ও শাসন সদ্ধর্মের দরদী মানুষ ছিলেন। সব সময় ভিক্ষুসংঘকে রক্ষা করার চেষ্টা করতেন। তার সাংঘিক প্রশাসনিক ও সাংগঠনিক চিন্তাচেতনা ছিল অসাধারণ। আজীবন সংঘের অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করেছেন। সকল সম্প্রদায়ের অনাথ ছেলেমেয়েদের অশ্রায় দিয়ে শিক্ষাদীক্ষায় প্রতিষ্ঠিত করে মানবতার কাজ করেছেন । এই রূপ সার্বজনীন মানবতাবাদী মধ্যহ্ন সূর্যের ন্যায় তেজদীপ্ত সংঘ পুরুষকে আমরা চিরতরে হারিয়েছি।

শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো
© All rights reserved © 2019 bibartanonline.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarbibart251
error: Content is protected !!