1. pragrasree.sraman@gmail.com : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী
  2. avijitcse12@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক :
রবিবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২১, ০২:৩৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম
আয়ারল্যান্ড থেকে ডেভিড বড়ুয়া’র পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন অগ্নিকাণ্ডের পুড়ে যাওয়া পরিবারের মাঝে মারমা ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের আর্থিক অনুদান ধম্মকথা’ বৌদ্ধ অনলাইন মুখপত্র এর উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ রাউজানে বিদর্শনসাধক লোকানন্দ ভিক্ষুর থের বরণ অনুষ্ঠান ভদন্ত বুদ্ধপ্রিয় মহাথের সকাশে বৃহত্তর হোয়ারপাড়া বৌদ্ধ কল্যাণ সমিতি নেতৃবৃন্দ উত্তবঙ্গের আদিবাসীদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ভদন্ত জ্যোতিমিত্র স্থবিরের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন ঢাকায় বৌদ্ধদের জন্য সার্বজনীন শ্মশান নির্মাণের সিদ্ধান্ত হাটহাজারীর জোবরা গ্রামে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় পরলোকে ভদন্ত জ্যোতিমিত্র স্থবির

ভারতে নির্যাতনের প্রতিবাদে হিন্দুত্ব ছেড়ে বৌদ্ধ হলেন কয়েকশ দলিত

প্রতিবেদক
  • সময় সোমবার, ৩০ এপ্রিল, ২০১৮
  • ৯৭৩ পঠিত

ভারতের বিভিন্ন মিডিয়ায় বলা হচ্ছে গুজরাতের গীর সোমনাথ জেলার দুটি গ্রামের তিনশরও বেশি ক্ষুব্ধ দলিত রোববার হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে বৌদ্ধ ধর্মে দীক্ষা নিয়েছেন।

২০১৬ সালে গুজরাতের উনার মোটা সমাধিয়ালা গ্রামে তথাকথিত ‘গো-রক্ষক’ উচ্চ বর্ণের হিন্দুরা যে কজন দলিত যুবককে মরা গরুর চামড়া ছাড়ানোর জন্য জনসমক্ষে বেঁধে বেত দিয়ে পিটিয়েছিল, তারা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা রোববারের ধর্ম ত্যাগীদের তালিকায় রয়েছেন।

নির্যাতিত ঐ যুবকদের পিতা বালু সারভাইয়াকে উদ্ধৃত করে টাইমস অব ইন্ডিয়া পত্রিকা লিখছে-” আমাদের ছেলেদের নির্মমভাবে বেত মারার ঘটনার দুই বছর হলো। অথচ এখন পর্যন্ত রাজ্য সরকার কিছুই করলো…আমরা সুবিচার পাইনি এবং অভিযুক্তরা জামিন পেয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে।”

“দলিত বিদ্রোহ এগিয়ে নিতেই আমরা বৌদ্ধ ধর্ম গ্রহণ করলাম..আরো যে সব দলিত নীরবে নির্যাতন ভোগ করছে, তারাও আজ অথবা কাল বৌদ্ধ হয়ে যাবে।”

তবে গুজরাটের কোনো নেতৃস্থানীয় দলিত নেতা, যেমন ভাডগ্রামের এমএলএ জিগনেষ মেওয়ানি, ঐ ধর্ম পরিবর্তনের অনুষ্ঠানে যাননি।

ভারতের বিভিন্ন মিডিয়ায় লেখা হয়েছে তিনজন বৌদ্ধ ধর্মগুরু ধর্ম পরিবর্তনের অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন।

২০১৬ সালে গো-রক্ষকদের হাতে দলিত যুবকদের নির্যাতনের প্রতিবাদে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছিল (ফাইল ফটো)

জানুয়ারিতে এই ধর্ম পরিবর্তনের হুমকি দিয়েছিল উনার মোটা সমাধিয়ালা গ্রামের দলিতরা।

কদিন আগে তাদের কজনকে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের জন্য হুমকি দেওয়া হয়েছিল।

এ কারণে গ্রামের চারদিক কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। গুজরাট পুলিশের জেরা পর্যায়ের বেশ কজন কড়কর্তা নিজেরাই সেখানে ছিলেন। ।

২০১৬ সালে উনায় গো-রক্ষকদের হাতে দলিত কজন যুবকের বেত-পেটা খাওয়ার ঘটনা নিয়ে সেসময় দলিতদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের জন্ম দিয়েছিল।

সাম্প্রতিক সময়ে ভারতে বিভিন্ন রাজ্যে বিভিন্ন ইস্যুতে দলিতরা সহিংস বিক্ষোভ করেছে।

শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো
© All rights reserved © 2019 bibartanonline.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarbibart251