1. pragrasree.sraman@gmail.com : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী
  2. avijitcse12@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক :
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৪:০৯ অপরাহ্ন

ধর্ম কোথায়?

প্রতিবেদক
  • সময় মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল, ২০১৮
  • ৪১২ পঠিত

ইলা মুৎসুদ্দী: এখন একটা কথা প্রায়ই শোনা যায়, বর্তমান সময়ে ধর্ম বলতে কিছু নেই? ধর্ম থাকলে এত অধর্ম হয় কি করে? সত্যিই কি তাই? ধর্ম কি নেই? ধর্ম কি দেখা যায় নাকি? আমি ধার্মিক —- এটা দেখানোর জন্য একটি মহাসংঘদান করলাম, হাজার লোককে খাওয়ালাম, এতে কি আমার সত্যিকার অর্থে ধর্ম করা হবে? ধর্ম সব জায়গায় আছে, ছিল এবং থাকবে। পৃথিবীতে খারাপ মানুষ আছে বলেই ভালো মানুষের কদর, ঠিক তেমনি অধর্ম আছে বলেই ধর্মের জয় জয়কার সব জায়গায়। বুদ্ধ বলেছেন, আচরণ করো। ধর্ম আছে অন্তরে। অনেকে বলে আমি তো খুব গরীব মানুষ। বছরে একটা সংঘদান করার সামর্থ্যও নেই। বেশী দান ও করতে পারি না। আমার ধর্ম কিভাবে হবে? যদি সত্যিকারভাবে বৌদ্ধ ধর্ম পালন করতে যায় তাহলে কিন্তু টাকা-পয়সার প্রয়োজন হয় না। কারণ আপনি নিয়মিত শীল পালন করুন, ভাবনা অভ্যাস করুন। আর দানের কথা বলছেন—-চিত্তসম্প্রযুক্ত জ্ঞানে যদি এক টাকা দান করেন সেই দানের ফল যিনি এক লক্ষ টাকা দান করেছেন তার চাইতে অধিক হবে। তাহলে আর চিন্তুা কিসের? যারা শীল পালন করেন, তাদের দেবগণ সমস্ত বিপদ আপদ থেকে রক্ষা করেন। হয়তোবা ভাবছেন, আমি এত শীল পালন করছি, ভাবনা করছি, সাধ্যমতো দানও করছি। তবু আমার পরিবারে এত অভাব কেন? কারণ একটাই— জন্ম জন্মান্তরে আমরা তো শীল পালন করি নাই, দান করি নাই, ভাবনা করি নাই। তাই আমাদের অভাব নিত্য লেগে আছে। একজন ভিক্ষু দেশনার সময় বলেছিলেন, মুসলিমরা যারা একদম গরীব তারাও ঈদ আসলে একটি কাপড় কিনে। বিভিন্ন কিছু রান্না করে। কিন্তু আমাদের বড়–য়ারা প্রবারণা পূর্ণিমার দিন এক কেজি চিড়া কেনার সামর্থ্য থাকে না। কেন থাকে না? কারণ বড়–য়ারা দান করতে খুবই কুণ্ঠিত। এটা কিন্তু সবার জন্য প্রযোজ্য নয়। তারপরও কিন্তু এটাই সত্য। অনেককে বলতে শুনি — ভিক্ষুরা শুধু দান চেয়ে নেয়। ভিক্ষুরা যদি আমাদেরকে এভাবে বলে বলে দান করতে উৎসাহিত না করে তাহলে আমরা যতই বিত্তবান হই না কেন আমাদের দান করতে তো খুবই অনাগ্রহ। ভিক্ষুরা বলে বলে আমাদের দানকাজে উৎসাহ বৃদ্ধি করে আমাদের পুণ্য বৃদ্ধি করে। সেই পুণ্যের ফল আমিই তো জন্ম জন্মান্তর ভোগ করব। তাতে ভিক্ষুর কী লাভ? ভিক্ষু বিহারের উন্নয়নে দান চাইল, তাতে আমারই তো লাভ। এই দানের ফল নির্বাণ লাভের হেতু হবে। ভিক্ষুরা দানকার্যে উৎসাহিত করছে, তাতে আমার যদি দান করতে ইচ্ছা না হয়, তাহলে আমি দান করব না। তাই বলে ভিক্ষুর নিন্দা করা তো ঠিক নয়। এতে তো মহা অকুশল উৎপন্ন হচ্ছে। সেই অকুশলের ফল জন্ম জন্মান্তর আমাকেই দুঃখ দিবে। ধর্ম যদি আচরণ করি, সঠিকভাবে অন্তরে লালন করি তাহলে ধর্মকে খুঁজতে কোথাও যাওয়ার দরকার নাই। কারণ ধর্ম আমাদের মনের মধ্যেই বাস করে।

শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো
© All rights reserved © 2019 bibartanonline.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarbibart251