1. pragrasree.sraman@gmail.com : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী : ভিকখু প্রজ্ঞাশ্রী
  2. avijitcse12@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক :
মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ১২:৫৬ অপরাহ্ন

রাউজানের মহামুনি পাহাড়তলিতে দুই দিন ব্যাপী ভদন্ত ধর্মপ্রিয় মহাথের জাতীয় হীরক জয়ন্তী উদযাপন সুসম্পন্ন

প্রতিবেদক
  • সময় শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭
  • ১৫৫৩ পঠিত

শিক্ষা, সংস্কৃতি বিকাশের পীঠস্থান মহামুনি পাহাড়তলি মহানন্দ সংঘরাজ বিহারে মহামান্য উপসংঘরাজ, বিচিত্র ধর্মকথিক, শাসন স্তম্ভ ভদন্ত ধর্মপ্রিয় মহাথেরো’র ৮৪ তম বর্ষে পদার্পনে ২ দিন ব্যাপী জাতীয় হীরক জয়ন্তী  উদযাপন সম্পন্ন হয়েছে। গত ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি রাউজান উপজেলার মহামুনি গ্রামে মহানন্দ সংঘরাজ বিহার সংলগ্ন মাঠে এই উপলক্ষে উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অঞ্জন বড়ুয়া ও বিপ্লব বড়ুয়ার সঞ্চালনায় তিন পর্বের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রথম দিবসে কুমিল্লা কনকস্তুপ বিহারের অধ্যক্ষ, অধ্যাপক ধর্মরক্ষিত মহাথেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার সভাপতি ভদন্ত অজিতানন্দ মহাথের। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন চবি’র প্রাচ্যভাষা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. জিনবোধি মহাথের । মূখ্য আলোচক ছিলেন চবি’র রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. বেণীপ্রসাদ বড়ুয়া। বিশেষ আলোচক ছিলেন ভদন্ত মৈত্রীপ্রিয় মহাথের, ড. জিনপ্রিয় মহাথের, রম্য লেখক সত্যব্রত বড়ুয়া প্রমুখ।সমাপনি দিবসে দুই পর্বের ধর্মীয় সভায় সভাপতিত্ব করেন যথাক্রমে একুশে পদক প্রাপ্ত উপ সংঘরাজ সত্যপ্রিয় মহাথের ও বাংলাদেশী বৌদ্ধদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় গুরু মহামান্য সংঘরাজ ড. ধর্মসেন মহাথের। প্রথম পর্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বৌদ্ধ বিহারের অধ্য উপ- সংঘরাজ ড. জ্ঞানশ্রী মহাথের। আশির্বাদক ও মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্জ্বলক ছিলেন ভারতীয় সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার উপ-সংঘরাজ ভদন্ত রতনজ্যোতি মহাথের। সদ্ধর্ম দেশক ভদন্ত শাসন বংশ মহাথের, ভদন্ত সুমঙ্গল মহাথের, ড. কাচ্চায়ন মহাথের (ভারত) প্রমুখ। শেষপর্বের উদ্বোধক ছিলেন চবি’র অধ্যাপক ড. জিনবোধি ভিক্ষু। আশির্বাদক ও মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্জ্বলক ছিলেন উপ-সংঘরাজ স্মৃতিধর শীলানন্দ মহাথের। অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন জয়ন্তীনায়ক উপ সংঘরাজ ভদন্ত ধর্মপ্রিয় মহাথের। আলোচক ছিলেন অধ্যাপক ধর্মরক্ষিত মহাথের, চবি’র অধ্যাপক ড. জ্ঞানরত্ন মহাথের, ড. সংঘপ্রিয় মহাথের,ভদন্ত এস লোকজিৎ স্থবির প্রমুখ। এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ভদন্ত বুদ্ধরতি মহাস্থবির, সরজিত বড়ুয়া রুরু, পবন কুমার বড়ুয়া, অঞ্জন বড়ুয়া, মলয় মুৎসুদ্দি প্রমুখ ।

সভায় বক্তারা বলেন, মূর্খের সেবাদাস হয়ে নয়, গুণীর প্রতি নিমগ্ন নৈবেদ্য গুণীর জন্ম দেয়। প্রজ্ঞার আশ্রিত হলেই মঙ্গলের আবির্ভব ঘটে। ধর্মপ্রিয় মহাথেরো’র হীরক জয়ন্তী অনুষ্ঠান প্রকৃত প্রেক্ষাপটে এই সময়ের পূণ্যময় ঘটনা প্রবাহ। এই সময়ে এমন একজন পূণ্যপুরুষের প্রতি গৌরব প্রদর্শন সমাজের সকল ক্ষেত্রে মঙ্গলের বাতাবরণ সৃষ্টি করবে।

শেয়ার দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো
© All rights reserved © 2019 bibartanonline.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarbibart251